নিজস্ব প্রতিবেদক | সর্বশেষ আপডেট: বৃহস্পতিবার, 10th মার্চ, 2016

যশোরে শিবির অফিসে গোপন সুড়ঙ্গ, ১০টি বোমাসহ আটক ১১

Share This
Tags
Print Friendly
যশোরে শিবির অফিসের নির্মাণাধীন ভবনের মাটির নিচে গোপন সুড়ঙ্গের সন্ধান পেয়েছে পুলিশ। সুড়ঙ্গটি ৩৮ ফুট লম্বা ও ১১ ফুট চওড়া। ৮ ফুট গভীরের এই সুড়ঙ্গে অভিযান চালিয়ে পুলিশ ১০টি বোমা ও বোমা তৈরির সরঞ্জাম, জিহাদি বই উদ্ধার করে। এখান থেকে ১১ জনকে আটক করা হয়। এদের মধ্যে নির্মাণ শ্রমিকও রয়েছে। তারা শিবিরের সঙ্গে যুক্ত কিনা তা নিশ্চিত হতে পারেনি পুলিশ।
বৃহস্পতিবার দুপুরে যশোর সদর উপজেলার জামায়াত অধ্যুষিত বসুন্দিয়া বাজার মোড়ের শিবির অফিসে এ অভিযান শুরু হয়। অভিযান শেষ হতে রাত পার হয়ে যাবে বলে ইত্তেফাককে জানান কোতোয়ালী থানার ওসি। আটককৃতরা হলেন যশোর সদরের বসুন্দিয়া এলাকার শিবিরকর্মী বিল্লাল হোসেন ও নুরুজ্জামান, স্থানীয় মমতাজ বেকারির মালিক টিটো, কেফায়েতনগর গ্রামের বাদশা, আলামিন ও নাম না জানা আরো ছয় জন।
যশোর কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি ইলিয়াস হোসেন জানান, বসুন্দিয়ার ভৈরব নদের পাড়ে বসুন্দিয়া ইউনিয়ন ছাত্র শিবিরের অফিসের মধ্যে নতুন ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। জামায়াত-শিবির বড় ধরনের নাশকতা পরিকল্পনার উদ্দেশ্যে ওই ভবনের নিচে গোপন ঘর তৈরি করছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই আস্তানায় অভিযান চালিয়ে প্রথমে বিল্লাল ও নুরুজ্জামান নামে দুই শিবির কর্মীকে আটক করা হয়। পরে স্থানীয় মমতাজ বেকারির মালিক টিটো, কেফায়েতনগর গ্রামের বাদশা, আলামিনসহ ১১ জনকে আটক করা হয়। সেখান থেকে ১১টি বোমা ও তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার করে পুলিশ। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত  অভিযান চলছিল জানিয়ে ওসি বলেন, শেষ না হওয়া পর্যন্ত সব তথ্য দেয়া সম্ভব না। অভিযান শেষ হতে শুক্রবার সকাল হয়ে যেতে পারে।