নিজস্ব প্রতিবেদক | সর্বশেষ আপডেট: রবিবার, 7th জুলাই, 2019

হাসিনার পালিত মিথ্যুক

Share This
Tags
Print Friendly

 মোহাম্মদ এমাদ, যুক্তরাজ্য থেকে

20190701_135414আওয়ামী লীগের লোকজন যদি ফেসবুকে কোরআনের আয়াতও পোস্ট করে তাইলে আগে দেখে নিতে হবে কোন জায়গাটা এডিট করে কি শয়তানীটা করছে। এমন মিথ্যাবাদী বাটপার এরা। লেটেস্ট নমুনা বাংলার গোয়েবলস আশরাফুল আলম খোকনের একটা ফেসবুক পোস্ট।

গোয়েবলসটার দাবী: “সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) এর হিসাব অনুযায়ী বিগত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৯০.৫ শতাংশ কেন্দ্রে নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হয়েছে। […] সুজন বলেছে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এক হাজার ২৮৫ কেন্দ্রে কোনো ভোট পায়নি বিএনপি জামাতের নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রতীক ধানের শীষ। অন্যদিকে ৫৮৭ কেন্দ্রে শতভাগ ভোট পেয়েছেন নৌকা প্রতীকের প্রার্থীরা। […] একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মোট নির্বাচনী কেন্দ্র ছিল প্রায় ৪২ হাজার। তারা গত ৬ মাস গবেষণা করে ১২৮৫ + ৫৮৭ = ১৮৭২ কেন্দ্রে অনিয়ম খুঁজে পেয়েছেন। যদি শতকরা হিসাবে ধরেন তাহলে এটা হলো মাত্র সাড়ে চার শতাংশ। এর মানে হলো ৯০.৫ শতাংশ কেন্দ্রে নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে।”

এইবার দেখি সুজনের দেওয়া হিসাবের পুরোটা।

যুগান্তর জানাচ্ছে: “[সুজনের সমন্বয়ক দিলীপ কুমার সরকার জানান] ৩০০টি নির্বাচনী এলাকার ৪০ হাজার ১৫৫টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ১০৩টি আসনের ২১৩টি ভোটকেন্দ্রে শতভাগ ভোট পড়েছে। আর ৯৯ শতাংশ ভোট পড়েছে ১২৭টি কেন্দ্রে, ৯৮ শতাংশ ভোট পড়েছে ২০৪ কেন্দ্রে, ৯৭ শতাংশ ভোট পড়েছে ৩৫৮ কেন্দ্রে এবং ৯৬ শতাংশ ভোট পড়েছে ৫১৬ ভোটকেন্দ্রে। অর্থাৎ ৯৬ শতাংশ থেকে ১০০ শতাংশ ভোট পড়েছে এক হাজার ৪১৮টি ভোটকেন্দ্রে। ৯০-৯৫ শতাংশ ভোট পড়েছে ৬ হাজার ৪৮৪টি কেন্দ্রে, ৮০-৮৯ শতাংশ ভোট পড়েছে ১৫ হাজার ৭১৯টি ভোটকেন্দ্রে এবং ৭০-৭৯ শতাংশ ভোট পড়েছে ১০ হাজার ৭৩টি কেন্দ্রে। ভোটের জন্য নির্ধারিত সময়ে শতভাগ ভোটপড়া সম্ভব কিনা সেই বিষয়ে প্রশ্ন তোলেন। তিনি বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অধিক হারে ভোট পড়াকে অনেকেই প্রশ্নবিদ্ধ মনে করেন। অনেকের মতে, নির্বাচনের দিনের ভোটের চিত্রের সঙ্গে ৮০ শতাংশের বেশি ভোট পড়া স্বাভাবিক ঘটনা নয়।”

এই হইলো এই হইলো খোদ নির্বাচন কমিশনের রিলিজ করা ফলাফলের ভিত্তিতে সুজনের দেওয়া হিসাব ও অস্বাভাবিক বেশী ভোটের ব্যপারে আপত্তি। অথচ আওয়ামী গোয়েবলসটা এইটারে টুইস্ট করে দাবী করতেছে: “[সুজনের] হিসাব অনুযায়ী বিগত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৯০.৫ শতাংশ কেন্দ্রে নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হয়েছে”!

এমনি এমনি শেখ হাসিনা এইগুলারে বেতন দিয়া পালতেছে না।