নিজস্ব প্রতিবেদক | সর্বশেষ আপডেট: বৃহস্পতিবার, 9th নভে., 2017

এসব কী শুরু হল: প্রশ্ন ফাঁসে ক্ষুব্ধ অভিভাবক

Share This
Tags
Print Friendly

শেরে বাংলা নগর সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ে কেন্দ্রের এক পরীক্ষার্থীর মা সালমা রহমান কোচিং সেন্টারগুলোকে দায়ী করে বলেন, “বিভিন্ন কোচিং সেন্টারের শিক্ষকরা বাচ্চাদের আগের রাতে বলে রাখে সকালে ফেইসবুকে প্রশ্ন দেওয়া হবে। আর সেকারণেই বাচ্চারাও অপেক্ষা করে থাকে, কখন প্রশ্ন পাবে তারা।” এবার জেএসসি পরীক্ষা শুরুর পর থেকে আলোচনায় প্রশ্ন ফাঁস। একটানা কয়েকটি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র মিলছে ইন্টারনেটে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে।

বৃহস্পতিবার সাধারণ বিজ্ঞান পরীক্ষা শুরুর ঘণ্টাখানেক আগে ঢাকার তিনটি কয়েকটি কেন্দ্রে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের তিন প্রতিবেদক দেখেছেন বইয়ের বদলে স্মার্টফোন নিয়ে শিশু পরীক্ষার্থীদের ব্যস্ততা।

কারণ একটাই প্রশ্নপত্র পাওয়া; সকাল ৯টার দিকে প্রশ্ন পাওয়ার পর উত্তর খুঁজে ১০টার মধ্যে পরীক্ষার হলে ঢোকে তারা।দুপুর ১টায় বেরিয়ে আসার পর এই শিক্ষার্থীদের হাসিমুখ বলে দেয়, মিলে গেছে পরীক্ষার প্রশ্নের সঙ্গে।

মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল কেন্দ্রে পরীক্ষা দিয়ে বেরিয়ে এক ছাত্র বলে, “প্রশ্ন সকালেরটাই আসছে। গত তিন দিনসহ আজকেরটা হুবহু মিলে গেছে।”

কোথায় পেয়েছ- জানতে চাইলে এই কিশোর বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলে, “মেসেঞ্জার গ্রুপ আছে, নম্বর দিছে, এখন ৫০০ টাকা পাঠাইতে হবে।”

মতিঝিল মডেল হাই স্কুলের এক শিক্ষার্থীও বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের কাছে প্রশ্ন পাওয়ার সরল স্বীকারোক্তি দেয়।

“হ্যাঁ, আমরা প্রশ্ন পেয়েছি। বন্ধুরা পেয়েছিল প্রথমে, আমাদের সকালে দিয়েছে। সকাল ৯টা থেকে সাড়ে ৯টার মধ্যেই প্রতিদিন প্রশ্ন চলে আসে। নেটে মেসেঞ্জারে বা হোয়াটস অ্যাপে প্রশ্ন আর উত্তরের ছবি চলে আসে। আজকের প্রশ্ন পেয়েছি ৯টা ১০ এ।”

এসব দেখে শেরে বাংলা নগর সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের এক পরীক্ষার্থীর অভিভাবক নিলুফার আক্তার ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বলেন, “এসব কী শুরু হল?”

তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “প্রতিদিনই তো প্রশ্ন ফাঁস হচ্ছে। অনেক বাচ্চাদের দেখা যায়, ৯টার পর থেকেই ওরা মোবাইল ফোনে প্রশ্ন দেখতে থাকে। এভাবে এক শিক্ষার্থী থেকে আরেক শিক্ষার্থীর হাতে চলে যায় এ প্রশ্ন।”

সকাল ৯টা থেকে মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল ও কলেজ, শেরে বাংলা নগর সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় ও মিরপুরের শহীদ পুলিশ স্মৃতি কলেজ কেন্দ্রের সামনে দেখা যায় একই চিত্র। তিনটি স্থানেই বেশ কিছু পরীক্ষার্থীর জটলা ছিল মোবাইল ফোন ঘিরে।

Show Buttons
Share On Facebook
Share On Twitter
Share On Google Plus
Share On Pinterest
Share On Youtube
Hide Buttons