নিজস্ব প্রতিবেদক | সর্বশেষ আপডেট: শনিবার, 7th মে, 2016

পীর’কে ছুরিকাঘাতে হত্যা

Share This
Tags
Print Friendly

রাজশাহীর তানোর উপজেলায় একজন স্থানীয় ‘পীর’কে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়েছে।

৬৫ বছর বয়স্ক মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ শুক্রবার সকালে চাঁপাইনবাবগঞ্জে তার অনুসারীদের সাথে দেখা করতে যাবার পথে তাকে হত্যা করা হয় বলে ধারণা করছে তার পরিবার।

পুলিশ বলছে, শুক্রবার সন্ধ্যায় তানোরের একটি আমবাগানে মি. শহীদুল্লার মরদেহ পাওয়া যায়। এসময় তার ঘাড়ে এবং গলায় ছুরিকাঘাতের চিহ্ন ছিল।

মি. শহীদুল্লাহর ছেলে রাসেল আহমেদ বলছেন, রাতে পুলিশ তাদের সাথে যোগাযোগ করলে তারা ঘটনাটি জানতে পারেন।160423135207_rajshahi_teacher_hacked_640x360_focusbangla_nocredit

তবে কেন তার বাবাকে হত্যা করা হয়েছে এসম্পর্কে কিছু বলতে পারছেন না মি. আহমেদ। তিনি বলছেন, তার বাবাকে কেউ হুমকি দেয়নি এবং এলাকার মানুষের সাথে তার ভালো সম্পর্ক ছিল।

মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ আগে গোয়ালন্দের একজন পীরের অনুসারী ছিলেন, কিন্তু গত ৫-৬ বছর যাবত তার বেশ কিছু অনুসারী তৈরি হয় এবং তিনি পীর হিসেবে পরিচিতি পান বলে জানান তার ছেলে। এলাকায় একটি মুদি দোকানও ছিল মি. শহীদুল্লাহর।

রাসেল আহমেদ বলেন, তার বাবা ‘ইমাম মাহদির তরিকা’ অনুসরণ করতেন বলে তিনি শুনেছেন।

এবিষয়ে তানোর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

গত ২৩শে এপ্রিল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন অধ্যাপককে একই কায়দায় হত্যা করে মরদেহ ফেলে রাখা হয়েছিল। পরবর্তীতে কথিত ইসলামিক স্টেট জঙ্গি সংগঠন এই হত্যার দায় স্বীকার করে বলে খবর পাওয়া যায়।

তানোর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বলছেন, এই ঘটনার সাথে কোন জঙ্গি সংগঠনের সম্পৃক্ততা এখনো তারা ধারণা করছেন না।

নিহতের ছেলে মি. আহমেদ বলছেন, তার বাবার জমিজমা সংক্রান্ত কিছু বিরোধ ছিল, কিন্তু তার ওপর আক্রমণ হতে পারে এমনটা তারা কখনো ধারণা করেন নি।

তিনি বলেন, শুক্রবার সকালে একটি মোটরসাইকেলে দুজন ব্যক্তি তার বাবাকে নিয়ে যাচ্ছিলেন বলে তিনি এলাকার মানুষের কাছে শুনেছেন। তবে তাদের পরিচয় কেউ বলতে পারেনি।

হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটি ‘পরিকল্পিত’ বলে ধারণা করছে তার পরিবার।

Show Buttons
Share On Facebook
Share On Twitter
Share On Google Plus
Share On Pinterest
Share On Youtube
Hide Buttons