নিজস্ব প্রতিবেদক | সর্বশেষ আপডেট: বুধবার, 29th অক্টো., 2014

জীবন্ত পাথর!

Share This
Tags
Print Friendly

ঢাকা ২৮ অক্টোবর (গ্লোবটুডেবিডি):

দেশের একমাত্র প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিনে সাদা বড় একটি রহস্যময় ‘জীবিত পাথরের!’ সন্ধান পাওয়া গেছে। এ পাথর দেখতে উৎসুক জনতার উপচেপড়া ভিড় পড়েছে। প্রতিবছরেই ছেড়া দ্বীপের কাছাকাছি এলাকায় এ পাথরের দেখা মিলে বলে এলাকাবাসী অনেকেই জানান।

সেন্টমার্টিন দ্বীপের পশ্চিম পাড়ার বাসিন্দারা জানায়, প্রতি ১০ বছর পর পর এ ধরনের জীবিত পাথর দ্বীপে অবস্থান করে। পাথরটি প্রায় সময় কয়েক দিনের জন্য স্থান পরিবর্তন করে। ছেড়াদিয়া, মাঝরদিয়া, দক্ষিণপাড়াসহ বিভিন্নস্থানে এই পাথরটির দেখা মিলেছে কিছু দিনের জন্য। আবার হঠাৎ কোথায় গায়েব হয়ে যায়। এলাকাবাসীর ধারণা এটি সাগরে চলে যায়। এবারে ১০ দিন আগে নাকি পাথরটি অবস্থান নিয়েছে বড় শীলের একদম উপরে। মনে হয় যেন কেউ এভাবে পাথরটিকে সেখানে রেখেছে। পাথরটি দেখা যাওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় লোকজন এক নজর দেখার জন্য ভিড় জমায়। অনেক দিন অপেক্ষা করার পর এ পাথরটি আবার পাওয়া গেছে বলে জানায় সেন্টমার্টিন দ্বীপের বাসিন্দারা। কষ্ট করে নৌকা ভাড়া করে সাগরের মাঝে এসে প্রত্যাশিত পাথর দেখা ও ধরে ছুঁয়ে দেখতে যাচ্ছে অনেকে। সেই রহস্যময় জীবিত! পাথর আবার দেখা যাওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় মানুষ এক নজর দেখার জন্য ভিড় জমাচ্ছে।

এ ব্যাপারে কক্সবাজার পরিবেশ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সর্দার শরীফুল ইসলাম বলেন, এটি না দেখে কিছু বলা কঠিন। নরমাল কোন পাথরে প্রাণ থাকা বিজ্ঞান সম্মত নয়। তবে কোরাল হলে প্রাণ থাকা সম্ভব। কারণ, কোরালগুলো জীবন্ত হয়। এগুলো নড়াচড়া করতে পারে। অনেক সময় কোন কোরালকে কাটলে বা ভাঙ্গলে ভেতর থেকে দুর্গন্ধ আসতে দেখা গেছে।

তিনি আরো জানান, সিলেটের জাফলং এলাকাতেও পাথর নড়াচড়া করে বা পাথরের প্রাণ আছে বলে কথাটা প্রচলিত আছে। এই ধারণাটা সঠিক নয় বলে উল্লেখ করে যে সব এলাকা থেকে পাথর তোলা হয় এবং প্রতিবছর আবার ওই এলাকায় পাথর পূর্ণ হওয়ার কথা প্রচলন রয়েছে সে ব্যাপারে তিনি বলেন, সেখানে হয় আশপাশে পাহাড় কাটা হয়েছে। নয়তো যে কোন কারণে ভূমি ধস হয়েছে। তাই নিচের পাথরগুলো দৃশ্যমান হয়েছে। তা হলে সেন্টমার্টিনের রহস্যময় পাথরটি কোরালও হতে পারে।

Leave a comment

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

Comment moderation is enabled. Your comment may take some time to appear.

Show Buttons
Share On Facebook
Share On Twitter
Share On Google Plus
Share On Pinterest
Share On Youtube
Hide Buttons