নিজস্ব প্রতিবেদক | সর্বশেষ আপডেট: বৃহস্পতিবার, 26th ডিসে., 2013

বীর খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধার পরিচিতি – ১১

Share This
Tags
Print Friendly

(বীর খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধাদের পরিচিতি পোর্টাল বাংলাদেশ ডটকম-এর একটি চলমান প্রক্রিয়া। ধারাবাহিকভাবে এটি তুলে ধরা হচ্ছে। চোখ রাখুন…)

মরহুম অনারারী মেজর জেনারেল আব্দুর রব বীর উত্তম

খেতাব: বীর উত্তম
নাম: মরহুম অনারারী মেজর জেনারেল আব্দুর রব বীর উত্তম
মাতা: মরহুমা রশিদা বেগম পিতা: মরহুম হাজী মনোয়ার
জন্ম: ০১-০১-১৯১৯
গেজেট: ৮

আব্দুর রব পাকিস্তান সেনাবাহিনীতে লে. কর্ণেল পদে চাকরি করতেন। চাকরি ছেড়ে তিনি রাজনীতিতে যোগ দেন। তিনি বাঙ্গালী জাতির মুক্তির সনদ আওয়ামী লীগের ৬ দফা আন্দোলনের সক্রিয় কর্মী ছিলেন। ১৯৭০ সালের নির্বাচনে সিলেট জেলার বানিয়াচং, আজমিরিগঞ্জ ও নবীগঞ্জ আসন থেকে তিনি এমএনএ নির্বাচিত হন। পরবর্তীতে পশ্চিম পাকিস্তানীদের বিরুদ্ধে অসহযোগ আন্দোলন ও প্রতিরোধ যুদ্ধে তিনি সক্রিয় ভ’মিকা পালন করেন।

২৬ মার্চ সিলেট জেলার হবিগঞ্জ থেকে পাকিস্তানি সৈন্যদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ যুদ্ধে অংশগ্রহণের মাধ্যমে তিনি মুক্তিযুদ্ধে যোগ দেন। কিন্তু আধুনিক অস্রশস্রে সজ্জিত পাকবাহিনীর বিরুদ্ধে সামান্য অস্র ও স্বল্প প্রশিতি অল্প সংখ্যক যোদ্ধা নিয়ে টিকতে না পেরে তিনি দলবল নিয়ে এপ্রিল মাসে ভারত চলে যান।

১৯৭১ সালের  ১০ এপ্রিল মুজিবনগরে অস্থায়ী সরকার গঠিত হয় এবং ১৭ এপ্রিল শপথ গ্রহণ করে। আব্দুর রব ।স্থায়ী সরকারের চিফ অব স্টাফ মনোনীত হন।

তিনি বাংলাদেশ সরকারের অস্থায়ী পূর্বাঞ্চলীয় সদর দপ্তর আগরতলায় কর্মরত ছিলেন। ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর মুক্তিযুদ্ধের প্রধান সেনাপতি এম. এ. জি. ওসমানীসহ হেলিকপ্টারযোগে ঢাকায় আসার পথে ফেঞ্চুগঞ্জে তাঁদেরকে ল করে গুলি ছোড়া শুরু হলে আব্দুর রব পায়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হন।

যুদ্ধ পরিকল্পনা, পরিচালনা ও নির্দেশনায় দতা ও বীরত্বপূর্ণ সাহসিকতার জন্য তিনি ‘বীর উত্তম’ উপাধিতে ভূষিত হন। দেশ স্বাধীন হলে বাংলাদেশ সরকার তাঁকে সম্মানসূচক মেজর জেনারেল হিসেবে পদোন্নতি প্রদান করে।

সৎ, আপোষহীন, বিনয়ী ও অসাধারণ ব্যক্তিত্বের অধিকারী আব্দুর রব কৈশোরে টেনিস ও ফুটবল খেলায় পারদর্শী ছিলেন। মৃত্যুর পর তাঁকে নিজ এলাকা হবিগঞ্জের উম্মেনগরে সমাহিত করা হয়।

Leave a comment

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

Comment moderation is enabled. Your comment may take some time to appear.

Show Buttons
Share On Facebook
Share On Twitter
Share On Google Plus
Share On Pinterest
Share On Youtube
Hide Buttons